জার্মানির বার্লিনে কেন পড়তে যাওয়া উচিত?

অনেকেই অনেকসময় প্রশ্ন করে থাকেন বার্লিনে কী কী ধরনের সুযোগ-সুবিধা আছে? বিশেষ করে একজন শিক্ষার্থী হিসেবে বার্লিনে কেমন ধরনের জব পাওয়া যায়? তাড়াতাড়ি চাকরি পাওয়া যায় কি-না, চাকরি পেলে আয়রোজগার কেমন হয় কিংবা ভাষা কোনো ব্যারিয়ার কি-না অথবা থাকা-খাওয়ার খরচই বা কেমন ইত্যাদি ইত্যাদি। বার্লিন নিয়ে আপনাদের জানার আগ্রহের যেন শেষ নেই। সবার যত প্রশ্ন আছে সেসবের জবাবই দেওয়ার চেষ্টা করা হয়েছে নিচের ভিডিওতে।

তবে মোদ্দাকথায় যদি বলি, তাহলে বলতে হবে, একজন শিক্ষার্থী হিসেবে জার্মানির যে-কোনো শহরের তুলনায় বার্লিনে চাকরি পাওয়া অনেকখানি সহজ। জার্মান একটা শব্দ না জেনেও কেবল ইংরেজিতে কথা বলেই চাকরি করছে অনেকে। এ ছাড়া চাকরি পাওয়াও তুলনামূলক অনেকখানি সহজ। এমন অনেকেই আছে যাঁদের কয়েকদিনও অপেক্ষা করতে হয় নি একটা চাকরি যোগাড় করতে।জার্মানির রাজধানী বার্লিন, বিশ্ববিখ্যাত এক শহর!
বার্লিন বিশ্ববিখ্যাত, কেবল সে কারণেই যে সেখানে পড়তে যাওয়া উচিত তা-ই নয়। জার্মানির সবচেয়ে বড় শহর বার্লিন সত্যিই কসমোপলিটন এক নগরী। পৃথিবীর এমন কোনো দেশ নেই যে দেশের মানুষ বার্লিন শহরে খুঁজে পাওয়া যাবে না। জার্মানিতে যে দু’হাজারের বেশি শহর রয়েছে তারমধ্যে পড়াশোনা কিংবা বসবাসের জন্য বার্লিন যে সেরা তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।
বার্লিনে বেশ কয়েকটা পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে। বার্লিনের সেরা পাঁচটি বিশ্ববিদ্যালয়ের তালিকা পাবেন এখানে

 

বাংলাদেশ, ভারত কিংবা দক্ষিণ এশিয়ার কোনো দেশ থেকে একজন শিক্ষার্থী হিসেবে উচ্চশিক্ষা নিতে জার্মানির কথা ভাবলে বার্লিনকে অবশ্যই তালিকার শীর্ষে রাখা উচিত। বার্লিনে একজন শিক্ষার্থীর জন্য কী কী ধরনের ‘সুযোগ-সুবিধা’ রয়েছে, কেন জার্মানির বার্লিনে পড়তে যাওয়া উচিত তারই উত্তর খোঁজার চেষ্টা করা হয়েছে আজকের এই ভিডিওতে… আশা করি এটি আপনাদের ভালো লাগবে। যদি ভালো লাগে সবার সঙ্গে শেয়ার করতে ভুলবেন না যেন!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *