বাল্টিকের পাড়ের দেশ ফিনল্যান্ডে স্কলারশিপ – ২০২১

ফিনল্যান্ড, উত্তর-পশ্চিম ইউরোপের বাল্টিক সাগরের উপকুলে অবস্থিত নর্ডিক দেশগুলোর একটি দেশ। যাকে বলা হয়ে থাকে বিশ্বের সব থেকে সুখী দেশগুলোর একটি। ফিনিস ভাষায় ফিনল্যান্ডকে ডাকা হয় ‘সুওমি’ নামে। যার বাংলা অর্থ করলে দাড়ায়, ‘হ্রদ ও দ্বীপভূমির দেশ’। যদিও বাংলাদেশের অধিকাংশ মানুষ ফিনল্যান্ডকে ‘নোকিয়ার জন্মস্থান’ হিসেবে চেনেন।

অপার সৌন্দর্যে ভরপুর উত্তরের এই বরফাচ্ছাদিত দেশটিতে মে থেকে জুন মাস অবধি প্রায় সবসময় দিন থাকে। তাই অনেকেই দেশটিকে ‘মধ্য রাতের সূর্য্যের দেশ’ হিসেবেও আখ্যা দিয়ে থাকেন। তাছাড়াও দেশটি অসংখ্য হ্রদ, পাথুরে দ্বীপ ও বিশাল প্রাকৃতিক সম্পদের জন্যও অনেক বিখ্যাত। মেরু অঞ্চলের দেশ হওয়ায় এখানে দেখা মেলা, এক বিস্ময় জাগানো প্রাকৃতিক সৌন্দর্য, ‘অরোরা’ দেখার জন্য… প্রতি বছর লাখ লাখ মানুষ এখানে ভিড় জমায় রাতের আকাশে এক ঝলক রং-বেরং এর ঢেউ খেলানো রংধনু ন্যায় অরোরার। চলুন, আমরাও আজ দেরি না করে জেনে আসি, অপার সৌন্দর্যের এই দেশটিতে বৃত্তি নিয়ার পড়ার খুঁটিনাটি বিষয়াদি সম্পর্কে।

 

বৃত্তির নাম : Finland Government Scholarship

আবেদনের শেষ সময় : ২৭ জানুয়ারি, ২০২১

 

কি কি থাকছে এই বৃত্তির মধ্যে? ফিনল্যান্ড সাধারণত বিনামূল্যে পড়াশোনার সুযোগ দিয়ে থাকে। তবে সুইজারল্যান্ড কিংবা সুইডেনের মত ধরা বাঁধা নিয়মের মধ্যে নয়! এদেশের উচ্চশিক্ষার নিয়ম অনেকটাই জার্মানির মত। এরপরেও আপনি এখানের সরকারি বৃত্তি গ্রহণের মাধ্যমে সামান্য সেমিস্টার ফি, প্রতি মাসের ডর্ম বা হোস্টেল ফি এবং খাওয়া-দাওয়া একদম বিনামূল্যে পাবেন। সাথে কিছু ক্ষেত্রে প্রতি মাসে আনুষঙ্গিক ভাতাও পেতে পারেন। তবে সেটা একান্তই ফিনিস সরকার নির্ধারণ করে থাকে।

 

কারা এই বৃত্তির জন্য যোগ্য? বিশ্বের যেকোনো দেশের, যেকোনো জাতির ছাত্র-ছাত্রীই এই বৃত্তির জন্য আবেদন করতে পারবে। তবে উল্লেখ্য, শুধু মাত্র স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর পর্যায়ের ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য এই বৃত্তি কার্যকর। অর্থাৎ, যারা ব্যাচেলর্স বা মাস্টার্স করতে আগ্রহী, তারা এই বৃত্তির জন্য আবেদন করতে পারেন।

 

আবেদনের নুন্যতম যোগ্যতা কি?

  • স্নাতক বা ব্যাচেলর্স এর জন্য কমপক্ষে ৭০% একাডেমিক ফলাফল
  • স্নাতকোত্তর বা মাস্টার্সের জন্য কমপক্ষে ৭৫% একাডেমিক ফলাফল

 

আবেদনের বয়সভিত্তিক যোগ্যতা কি?

  • স্নাতক বা ব্যাচেলর্স এর জন্য ২১ বছরের বেশি নয়
  • স্নাতকোত্তর বা মাস্টার্সের জন্য ৩০ বছরের বেশি নয়

 

আবেদনের জন্য কি কি কাগজপত্র প্রয়োজন?

  • জাতীয় পরিচয় পত্র বা জন্ম নিবন্ধন
  • কমপক্ষে ১ বছরের মেয়াদ সম্পন্ন পাসপোর্ট
  • পাসপোর্ট সাইজ ছবি
  • জাতীয় পরীক্ষা এবং প্রাতিষ্ঠানিক পরীক্ষার সনদ ও নম্বর পত্র
  • ডিপ্লোমা বা সাময়িক সংক্ষিপ্ত কোর্স সনদ (যদি থাকে)
  • GRE/GMAT/DELF/YDS এর নম্বর পত্র
  • TOEFL/IELTS এর নম্বর পত্র
  • গবেষণা পত্র

[বিঃদ্রঃ সকল কাগজাদি অবশ্যই নোটারি করা হতে হবে]

 

কারা আবেদন করতে পারবে না?

ফিনিস নাগরিক এবং প্রাক্তন ফিনিস প্রতিষ্টানের ছাত্র-ছাত্রীরা এই বৃত্তির আওতার বাইরে থাকবে।

 

কিভাবে আবেদন করব?

আবেদন করতে এখানে ক্লিক করুন।

 

ভাল লাগলে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন। কোনো প্রশ্ন থাকলে আমাদের ফেসবুক গ্রুপে পোস্ট করতে পারেন। সবসময় আপনার সহযোগিতায় পাশে আছি আমরা। ধন্যবাদ।

আমাদের ইউটিউব চ্যানেল – eGal

 

আমার আরও লেখা –


Jowad

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *